সদ্য সংবাদ
Home / আন্তর্জাতিক / দিল্লির বিক্ষোভ-সহিংসতায় নিহত বেড়ে ৪২

দিল্লির বিক্ষোভ-সহিংসতায় নিহত বেড়ে ৪২

ভারতের রাজধানী দিল্লিতে বিক্ষোভ-সহিংসতায় ৪২ জনের মৃত্যু হয়েছে। আহত হয়েছে আরও ৩ শতাধিক মানুষ। এখনও থমথমে পরিস্থিতি বিরাজ করছে উত্তর-পূর্ব দিল্লির মৌজপুর, বাবরপুর, জাফরাবাদের মতো বেশ কয়েকটি এলাকায়।

শুক্রবারের নামাজের আগে নিরাপত্তার লক্ষ্যে গুরুগ্রামে হাই অ্যালার্ট জারি করা হয়েছে। প্রতিহিংসার ঘটনায় এখন পর্যন্ত ৪৮টি এফআইআর দায়ের করেছে দিল্লি পুলিশ। সহিংসতার ঘটনা তদন্তে দুটি বিশেষ তদন্তকারী দল গঠন করা হয়েছে।

দোকান-পাট কিছুক্ষণ খোলা রাখার জন্য কোথাও কোথাও কয়েক ঘণ্টার জন্য কারফিউ শিথিল করা হয়েছে। গত রোববার সহিংসতা শুরুর পর থেকেই গুরুগ্রামে রেড অ্যালার্ট জারি করা হয়।

এদিকে, ভারতের কেন্দ্রীয় স্বরাষ্ট্র মন্ত্রী অমিত শাহ দিল্লির পরিস্থিতি নিয়ে ঊর্ধ্বতন পুলিশ কর্মকর্তাদের সঙ্গে বৈঠক করেছেন। তবে গত কয়েকদিনের সহিংসতা নিয়ে কোনো ধরনের বক্তব্য না দেয়ায় তাকে নিয়ে বেশ সমালোচনা হয়েছে। এছাড়া প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদিও সহিংসতা শুরুর পর চুপই ছিলেন। সহিংসতার তিনদিন পর তিনি সবাইকে শান্তি ও ভ্রাতৃত্ববোধ বজায় রাখার আহ্বান জানিয়েছেন।

বিতর্কিত নাগরিকত্ব সংশোধনী (সিএএ) আইনকে কেন্দ্র করে গত রোববার থেকে দিল্লির উত্তর-পূর্বের বিভিন্ন শহরে দাঙ্গা-সহিংসতা ছড়িয়ে পড়ে। সহিংসতার পর পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে আনতে এর আগে কড়া বিধিনিষেধ আরোপ করা হয়েছিল। শুক্রবার থেকে এসব বিধি-নিষেধ কমে আসতে পারে বলে ধারণা করা হচ্ছে।

এদিকে, দিল্লির মুখ্যমন্ত্রী অরবিন্দ কেজরিওয়াল ঘোষণা দিয়েছেন যে, সহিংসতার ঘটনায় হতাহত ব্যক্তিদের ক্ষতিপূরণ দেয়া হবে। নিহত বয়স্ক পরিবারকে ১০ লাখ ও নিহত নাবালক পরিবারকে ৫ লাখ রুপি করে আর্থিক সহায়তা দেয়ার ঘোষণা দেয়া হয়েছে।

গত শনিবার জাফরাবাদে সিএএ-বিরোধীরা রাস্তা অবরোধ করে। রোববার থেকে পাল্টা সিএএর পক্ষে সমাবেশ শুরু হয়। এরপরেই দু’পক্ষের মধ্যে পাল্টাপাল্টি সংঘর্ষ শুরু হয়। আর এই বিক্ষোভই সংঘাতে রূপ নেয় এবং দিল্লি রণক্ষেত্রে পরিণত হয়। বিভিন্ন স্থানে বেছে বেছে মুসলিমদের ঘর-বাড়ি এবং দোকানপাটে হামলা চালানো হয় এবং আগুন ধরিয়ে দেয়া হয়।

পরিস্থিতির উন্নতি ঘটেছে বলে এক বিবৃতিতে উল্লেখ করেছেন অমিত শাহ। স্বরাষ্ট্র মন্ত্রণালয় এক বিবৃতিতে জানিয়েছে, পরিস্থিতির উন্নতি হওয়ায় শুক্রবার ভোর ৪টা থেকে সকাল ১০টা এবং বিকাল ৪টা থেকে সন্ধ্যা ৮টা পর্যন্ত বড় ধরনের সমাবেশের ওপর থেকে নিষেধাজ্ঞা শিথিল করা হচ্ছে।

স্বরাষ্ট্র মন্ত্রণালয় এক বিবৃতিতে জানিয়েছে, মানুষের উচিত হবে গুজবে কান না দেওয়া এবং যে দুষ্কৃতীরা সাম্প্রদায়িক উত্তেজনা বাড়াতে চাইছে তাদের ফাঁদে পা না দেওয়া। এতে আরও বলা হয়েছে, দিল্লির ২০৩টি থানার মধ্যে মাত্র ১২টি থানার এলাকা অর্থাৎ প্রায় ৪.২ শতাংশ এলাকা দাঙ্গায় আক্রান্ত হয়েছে।

পাশাপাশি আরও জানানো হয়েছে, পূর্ব দিল্লি পৌরসভার পক্ষ থেকে আক্রান্ত এলাকার বিধ্বস্ত রাস্তাঘাটা পরিষ্কার করে দাঙ্গায় আক্রান্ত জনসম্পত্তির মেরামতের কাজ শুরু হয়েছে। স্বরাষ্ট্র মন্ত্রণালয় আরও জানিয়েছে, দিল্লি পুলিশ সাম্প্রদায়িক সম্প্রীতি বজায় রাখার জন্য শান্তি বৈঠকের আয়োজন করছে। এখন পর্যন্ত প্রায় ৩৩০টি বৈঠক হয়েছে বলে জানানো হয়েছে।

About bdlawnews

Check Also

হংকংয়ের জন্য ‘দেশপ্রেমিক’ আইন পাশ করছে চীন

হংকংয়ের জন্য ‘দেশপ্রেমিক‘ আইন পাস করছেহংকংয়ের নির্বাচন সংক্রান্ত্র বিধিবিধানে পরিবর্তন আনছে চীন। আজ মঙ্গলবারই বিষয়টি …

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

error: Content is protected !!

Powered by themekiller.com