সদ্য সংবাদ
Home / আইন আদালত / পাপিয়ার তথ্য চেয়ে ৫৯ ব্যাংকে দুদকের চিঠি

পাপিয়ার তথ্য চেয়ে ৫৯ ব্যাংকে দুদকের চিঠি

যুব মহিলা লীগের বহিষ্কৃত নেত্রী শামিমা নূর পাপিয়া এবং তার স্বামীর অর্থের তথ্য জানতে দেশি-বিদেশি ৫৯টি ব্যাংকের ব্যবস্থাপনা পরিচালকের কাছে চিঠি দিয়েছে দুর্নীনি দমন কমিশন (দুদক)।

রবিবার দুদকের উপ-পরিচালক শাহিন আরা মমতাজ স্বাক্ষরিত চিঠিটি ব্যাংকগুলোতে পাঠানো হয় বলে দুদক সূত্রে জানা গেছে।

দুদক সূত্রটি জানায়, থাইল্যান্ড ও মালয়েশিয়ায় এই দম্পতির বাড়ি ও ব্যাংক হিসাবের তথ্য জানতে কেন্দ্রীয় ব্যাংকের বাংলাদেশ ফাইন্যান্সিয়াল ইন্টেলিজেন্স ইউনিট বিএফআইইউ-এর কাছে আলাদা চিঠি পাঠানো হয়েছে।

দেশি-বিদেশি ৫৯টি ব্যাংকের কাছে পাপিয়া দম্পতির নিজ, যৌথ, তারে মালিকানাধীন প্রতিষ্ঠানের নামে খোলা চলতি হিসাব, মেয়াদি আমানত, কেওয়াইসি ফরম ও এসব ক্ষেত্রে আর্থিক বিবরণ চাওয়া হয়েছে।

চিঠিতে জরুরি ভিত্তিতে ওইসব তথ্য সংগ্রহ ও যাচাই করে দুদকের কাছে পাঠাতে বলা হয়েছে। এর আগে, গত ২ মার্চ ওয়েস্টিন হোটেলে পাপিয়ার গেস্টরে নাম ও যাবতীয় বিল-ভাউচারের কপি চেয়ে হোটেল কর্তৃপক্ষের কাছে চিঠি দেয় দুদক। যদিও সংশ্লিষ্ট নথিপত্র এখনো পৌঁছায়নি বলে জানা গেছে।

এনবিআর সূত্রে জানা যায়, পাপিয়া কর অঞ্চল-১০ এর আওতায় নিয়মিত আয়কর নথি জমা দেন। পাপিয়ার ২০১৯-২০ অর্থ বছরে দাখিল করা আয়কর বিবরণী পর্যালোচনায় দেখা যায়, তিনি বছরে আয় দেখিয়েছেন মাত্র ৩ লাখ টাকা। আর মোট সম্পদের পরিমাণ উল্লেখ করেছেন ১৮ লাখ ৮৮ হাজার টাকা।

বিদেশে অর্থ পাচারসহ কোটি কোটি টাকার অবৈধ সম্পদ অর্জনের অভিযোগে পাপিয়া ও তার স্বামী মফিজুর রহমান ওরফে সুমন চৌধুরীর বিরুদ্ধে অনুসন্ধানে নেমেছে দুদক। তাদের বিরুদ্ধে মাদক ব্যবসা, জাল টাকার ব্যবসা ও বিভিন্ন অনৈতিক কার্যকলাপের মাধ্যমে কোটি টাকার সম্পদ পাচার এবং কোটি কোটি টাকার অবৈধ সম্পদ অর্জনের অভিযোগ রয়েছে।

এর আগে পাপিয়ার বিরুদ্ধে রাজধানীর বিমানবন্দর ও শেরেবাংলা নগর থানায় পৃথক তিনটি মামলা করে র‌্যাপিড অ্যাকশন ব্যাটালিয়ন (র‌্যাব)। গত ২৩ ফেব্রুয়ারি বিমানবন্দর থানায় বিশেষ ক্ষমতা আইনে একটি এবং ২৪ ফেব্রুয়ারি শেরেবাংলা নগর থানায় অস্ত্র আইনে একটি ও বিশেষ ক্ষমতা আইনে আরেকটি মামলা করা হয়েছে।

গত ২২ ফেব্রুয়ারি ুপুরে হযরত শাহজালাল আন্তর্জাতিক বিমানব›র থেকে জাল টাকা বহন ও টাকা পাচারের অভিযোগে পাপিয়া ওরফে পিউসহ চারজনকে গ্রেপ্তার করে র‌্যাব। বাকিরা হলেন- পাপিয়ার স্বামী মফিজুর রহমান ওরফে সুমন চৌধুরী ওরফে মতি সুমন, সাব্বির খন্দকার ও শেখ তায়্যিবা।

রাজধানীর ফার্মগেটের ইন্দিরা রোডে ও নরসিংদীতে বিলাসবহুল বাড়ি-গাড়িসহ পাপিয়া দম্পতির নামে-বেনামে বিপুল পরিমাণ অর্থ-সম্পদের সন্ধান পায় র‌্যাব। র‌্যাবের অভিযানে ফার্মগেটে ইন্দিরা রোডে এ দম্পতির বাসা থেকে পিস্তল, গুলি ও গুলির ম্যাগজিন, বিিেশ মদ, ৫৮ লাখ টাকা, ৫টি পাসপোর্ট, ৩টি চেক উদ্ধার করে।

About bdlawnews

Check Also

আবরার হত্যা মামলায় বুয়েট শিক্ষকসহ দুজনের সাক্ষ্য

বাংলাদেশ প্রকৌশল বিশ্ববিদ্যালয়ের (বুয়েট) শিক্ষার্থী আবরার ফাহাদ হত্যা মামলায় কম্পিউটার সায়েন্স ইঞ্জিনিয়ারিং (সিএসই) বিভাগের সহকারী …

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

Powered by themekiller.com