সদ্য সংবাদ
Home / দেশ জুড়ে / প্রিপেইডে মিলবে ওয়াসার পানি

প্রিপেইডে মিলবে ওয়াসার পানি

নগরীতে এটিএম বুথের মাধ্যমে পানি সরবরাহ করবে চট্টগ্রাম ওয়াসা। আগামী দুই মাসের মধ্যে বুথ থেকে পানি পাবে গ্রাহকরা। এ জন্য প্রাথমিক পর্যায়ে নগরীর চারটি স্থানে বুথ তৈরির কাজ চলছে। এগুলো সম্পন্ন হওয়ার পর গ্রাহকদের চাহিদা বিবেচনায় নগরীতে আরো এটিএম বুথ তৈরি করবে।

ওয়াসা সূত্র জানায়, প্রথম পর্যায়ে নগরীর খুলশী আবাসিক এলাকায় ১ নং রোডে ওয়াসার পাম্পহাউসের সামনে একটি এটিএম বুথ তৈরির কাজ চলছে। আগামী দুই মাসের মধ্যে এটি থেকে পরীক্ষামূলকভাবে ক্রেতা সাধারণ এটিএম কার্ডের মাধ্যমে পানি সরবরাহ পাবে। সূত্র আরো জানায়, নিজেদের উৎপাদিত পানি বাজারে আনার লক্ষ্যে দুটি প্রকল্প গ্রহণ করে চট্টগ্রাম ওয়াসা। এরমধ্যে প্রথম প্রকল্পটি হচ্ছে নগরীর বিভিন্ন গুরুত্বপূর্ণ স্থানে এটিএম বুথের মাধ্যমে গ্রাহকদের মাঝে বিশুদ্ধ পানি সরবরাহ এবং দ্বিতীয়টি বোতলজাত মিনারেল পানি বাজারজাত করা। প্রাথমিক পর্যায়ে খুলশী, দামপাড়া ওয়াসার মোড়, আগ্রাবাদ ওয়াসা (মড-১) অফিসের সামনে এবং সদরঘাট এলাকায় বুথ স্থাপন করা হবে। ওয়াসার পাম্পহাউস সংলগ্ন এসব এটিএম বুথ স্থাপনে ইতোমধ্যে কাজ শুরু করেছে ওয়াসা।

এটিএম ড্রিংকিং ওয়েল ওয়াটার নামের একটি কোম্পানি ‘ড্রিংকিং ওয়েল ওয়াটার এটিএম’ নামের পাইলট প্রকল্পটি বাস্তবায়ন করছে। এটি বাস্তবায়ন হলে নগরবাসীর বিশুদ্ধ পানির চাহিদা মেটাতে বুথ থেকে সারাক্ষণ পানি পাবে। এটিএম বুথ থেকে লোকজন বাসা-বাড়ি এবং হোটেল-রেস্টুরেন্টের জন্য পানি কিনতে পারবে। পাশাপাশি সাধারণ পথচারীরাও যাতে পানি পান করতে পারে এজন্য বুথে ছোট্ট গ্লাস রাখা হবে। বুথের কর্মকর্তার কাছে থাকা কার্ড দিয়ে এক গ্লাস পানি কিনে পান করে নির্দিষ্ট দাম পরিশোধ করতে পারবে। প্রথম প্রকল্পে প্রাথমিক পর্যায়ে নগরীর ৪টি গুরুত্বপূর্ণ স্থানে বিশুদ্ধ পানি সরবরাহের বুথ বসানো হচ্ছে। এই বুথে থাকবে রিচার্জেবল প্রিপেইড কার্ড। যে কোন গ্রাহক এই কার্ড দিয়ে সারাক্ষণ পানি নিতে পারবে। এটি সফল হলে পুরো নগরী জুড়ে পর্যায়ক্রমে এ প্রকল্প বাস্তবায়ন করবে ওয়াসা।

ওয়াসার তত্ত্বাবধায়ক প্রকৌশলী মো. আরিফুল ইসলাম দৈনিক পূর্বকোণকে বলেন, এটিএম ড্রিংকিং ওয়েল ওয়াটার নামের একটি কোম্পানি ‘ড্রিংকিং ওয়েল ওয়াটার এটিএম’ নামের পাইলট প্রকল্পটি বাস্তবায়ন করছে। ইতোমধ্যে এই কোম্পানির সাথে ওয়াসার চুক্তি স্বাক্ষরিত হয়েছে। চুক্তির পর পাইলট প্রকল্পের কাজ শুরু হয়েছে। এটি সফল হলে নগরীর আরো অনেক জায়গায় বুথ স্থাপন করা হবে। ঢাকা ওয়াসাতেও এ কোম্পানি কাজ করেছে। গ্রাহকরা বুথ থেকে রিচার্জেবল প্রিপেইড কার্ড সংগ্রহ করে মেশিনে দেওয়ার সাথে সাথে পানি পড়তে থাকবে’।

এ প্রসঙ্গে ওয়াসার ব্যবস্থাপনা পরিচালক প্রকৌশলী এ.কে.এম ফজলুল্লাহ বলেন, ‘আগামী কয়েক মাসের মধ্যে নগরীর কয়েকটি স্থানে ওয়াটার বুথ স্থাপন করা হবে। একই সাথে বোতলজাত মিনারেল পানি বাজারজাত করারও উদ্যোগ নেওয়া হয়েছে। কর্ণফুলী পানি সরবরাহ প্রকল্প-২ এ বোতলজাত পানি সরবরাহ প্রকল্পটিও রয়েছে। একনেকে মূল প্রকল্পটি অনুমোদিত হয়েছে। বোতলজাত পানির ক্ষেত্রে আমরা ট্টিটমেন্টের পাশাপাশি মিনারেলও বসাবো। মিনারেল পানির বোতল আমরা তৈরি করবো’।

About bdlawnews24

Check Also

করোনায় আরো ২৮ জনের মৃত্যু, শনাক্ত ১০১৪

করোনাভাইরাসে দেশে ২৪ ঘণ্টায় আরো ২৮ জনের মৃত্যু হয়েছে। এ নিয়ে মোট মৃতের সংখ্যা বেড়ে …

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

Powered by themekiller.com