Home / জাতীয় / ঘূর্নিঝড় আম্ফানে শরণখোলার ক্ষতিগ্রস্থ এলাকা পরিদর্শন করেছেন পানি সম্পদ প্রতিমন্ত্রী।

ঘূর্নিঝড় আম্ফানে শরণখোলার ক্ষতিগ্রস্থ এলাকা পরিদর্শন করেছেন পানি সম্পদ প্রতিমন্ত্রী।

নইন আবু নাঈমঃ

সুপার সাইক্লোন আম্ফানে ক্ষতিগ্রস্থ বাগেরহাটের শরণখোলায় গাবতলা, বগী ও শরণখোলা এলাকা পরিদর্শন করেছেন গনপ্রজাতন্ত্রী বাংলাদেশ সরকারের পানি সম্পদ প্রতিমন্ত্রী কর্নেল (অবঃ) জাহিদ ফারুক শামীম এমপি।
গত ২০মে অাঘাত হানা ঘূর্ণিঝড় আম্ফানে শরণখোলা উপজেলার সাউথখালী ইউনিয়নের গাবতলা, বগী এলাকায় ৩৫/১ পোল্ডারের ভেড়িবাঁধের ৮টি পয়েন্ট বিধ্বস্ত হয়ে পাঁচ গ্রাম প্লাবিত হওয়ায় দুই হাজার পরিবার পানি বন্দী হয়ে পড়ে।
পরে ২২ মে বাগেরহাট-৪ আসনের সংসদ সদস্য এ্যাডভোকেট আমিরুল আলম মিলন ক্ষতিগ্রস্থ এলাকা পরিদর্শন করে এক সপ্তাহের মধ্যে পানি সম্পদ প্রতিমন্ত্রীকে নিয়ে দ্রুত কার্যকরী ব্যবস্থা গ্রহনের আশ্বাস দেন। অন্যদিকে বাগেরহাট-৪ আসনের এম.পি আমিরুল আলম মিলনের ও পানি সম্পদ প্রতিমন্ত্রী কর্নেল (অব.)জাহিদ ফারুক শামীম আজ বুধবার নৌপথে উপকূলীয় উপজেলা শরণখোলার ক্ষতিগ্রস্থ এলাকা পরিদর্শন করেন।
সন্ধ্যায় গাবতলা আশার আলো জামে মসজিদের সামনে সংক্ষিপ্ত পথসভায় প্রতিমন্ত্রী বলেন বাংলাদেশ সরকার এবং পানি সম্পদ মন্ত্রনালয় ইতিমধ্যে সাউথখালী ইউনিয়নের ভাঙ্গন কবলিত এলাকার জন্য বিশেষ প্রকল্প গ্রহণ করেছে। ইতিমধ্যে ৯০০কোটি টাকার ২টি এবং ১২০০কোটি টাকার ১টি মোট ৩টি প্রকল্প গ্রহণ করা হয়েছে এবং সেনাবাহিনীর তত্তাবধানে ভেড়িবাঁধ নির্মান করা হবে। জমি অধিগ্রহণের জটিলতা অবসানে স্থানীয় জমির মালিকদের সহায়তা কামনা করেন।
এসময় প্রতিমন্ত্রীর সাথে উপস্থিত ছিলেনন জেলা প্রশাসক মামুনুর রশিদ, পুলিশ সুপার পংকজ রায়, শরণখোলা উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা সরদার মোস্তফা শাহীন, শরণখোলা উপজেলা আওয়ামীলীগের সাধারণ সম্পাদক আজমল হোসেন মুক্তা, সাউথখালী ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান মোজাম্মেল হোসেন, আওয়ামীলীগ নেতা আব্দুল হক হায়দার, রায়েন্দা ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান আসাদুজ্জামান মিলন প্রমূখ।

শরণখোলা, বাগেরহাট।
তারিখঃ ২৭.০৫.২০২০

About bdlawnews

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

error: Content is protected !!

Powered by themekiller.com