সদ্য সংবাদ
Home / আইন আদালত / পাপুলের সঙ্গে সংশ্লিষ্টতা, আরেক কুয়েতি কর্মকর্তার বিরুদ্ধে তদন্ত

পাপুলের সঙ্গে সংশ্লিষ্টতা, আরেক কুয়েতি কর্মকর্তার বিরুদ্ধে তদন্ত

মানব ও মুদ্রা পাচারের অভিযোগে কুয়েতে আটক বাংলাদেশের সাংসদ শহিদ ইসলাম পাপুলের সঙ্গে অনৈতিক কাজে দেশটির সহযোগিদের তালিকা ক্রমেই দীর্ঘ হচ্ছে।বাংলাদেশি সাংসদের আটকের ৭০ দিনের মাথায় কুয়েতের আরও দুই নাগরিকের বিরুদ্ধে তদন্ত শুরু হয়েছে। তাদের একজন হলেন দেশটির স্বরাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ের সহকারী আন্ডারসেক্রেটারির কার্যালয়ের জ্যেষ্ঠ কর্মকর্তা, অন্যজন একই মন্ত্রণালয়ের এক জ্যেষ্ঠ কর্মকর্তার ছেলে।

শনিবার কুয়েতি ইংরেজি দৈনিক আরব টাইমস দেশটির আরবি দৈনিক আল রাই-এর বরাত দিয়ে এসব তথ্য জানায়।

আরব টাইমসের খবরে বলা হয়, বাংলাদেশি সাংসদের সঙ্গে অর্থপাচারের অভিযোগে দেশটির স্বরাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ের সহকারী আন্ডারসেক্রেটারির কার্যালয়ের জ্যেষ্ঠ কর্মকর্তা ও একই মন্ত্রণালয়ের এক জ্যেষ্ঠ কর্মকর্তার ছেলের বিরুদ্ধে এরইমধ্যে অর্থপাচারে সংশ্লিষ্টতার বিস্তারিত প্রতিবেদন পাবলিক প্রসিকিউশনে জমা দিয়েছে ফিনান্সিয়াল ইনভেস্টিগেশন ইউনিট।

আল রাই-এর উদ্ধৃতি দিয়ে আরব টাইমসের খবরে বলা হয়, ওই দুই ব্যক্তির সঙ্গে একইরকমের অন্য মামলাগুলোর সংযোগ খতিয়ে দেখছে পাবলিক প্রসিকিউশন।

মানব ও মুদ্রা পাচারের অভিযোগে কুয়েতের ক্রিমিনাল ইনভেস্টিগেশন ডিপার্টমেন্টের (সিআইডি) কর্মকর্তারা গত ৬ জুন শহিদ ইসলামকে তার বাসা থেকে আটক করে। এরপর গোয়েন্দাদের কাছে জিজ্ঞাসাবাদে শহিদ ইসলাম কুয়েতের রাজনীতিবিদ, সরকারি কর্মকর্তাসহ বিভিন্ন পর্যায়ের প্রভাবশালী লোকজনকে ঘুষ দিয়ে অনৈতিকভাবে ব্যবসা পরিচালনার কথা স্বীকার করেছেন। তার স্বীকারোক্তির ভিত্তিতে মেজর জেনারেল মাজেনসহ বেশ কয়েকজন জ্যেষ্ঠ সরকারি কর্মকর্তার বিরুদ্ধে ব্যবস্থা নেওয়া শুরু হয়েছে।

বেশ কয়েকবার শহিদ ইসলামের জামিন নাকচ করে আদালত তাকে কেন্দ্রীয় কারাগারে পাঠিয়েছে। এরই মধ্যে তার বিরুদ্ধে মামলার চার্জ গঠন করা হয়েছে।

সাধারণ শ্রমিক হিসাবে কুয়েত গিয়ে বিশাল সাম্রাজ্য গড়া পাপুল ২০১৮ সালে লক্ষ্মীপুর-২ (রায়পুর) আসনে স্বতন্ত্র প্রার্থী হয়ে সংসদ সদস্য নির্বাচিত হন। পাপুলের মালিকানাধীন মারাফি কুয়েতিয়া গ্রুপে প্রায় ১৫ থেকে ২০ হাজার প্রবাসী বাংলাদেশি কাজ করেন বলে কুয়েতে বাংলাদেশ কমিউনিটির ধারণা।

কোম্পানির ওয়েবসাইট থেকে জানা যায়, সেবা খাত, নিরাপত্তা, নির্মাণ, আবাসন, পরিবহন, তেল শোধন প্রভৃতি খাতে কার্যক্রম রয়েছে মারাফি কুয়েতিয়া গ্রুপের। কুয়েতের বাইরে মধ্যপ্রাচ্যের কয়েকটি দেশে ব্যবসায় রয়েছে তাদের।

পাপুলের বিরুদ্ধে ওঠা মানবপাচারের অভিযোগ তদন্ত হওয়ার বিষয়ে গত ফেব্রুয়ারিতে দেশ-বিদেশের বিভিন্ন সংবাদ মাধ্যমে খবর প্রকাশিত হয়েছিল। সে সময় কুয়েত সিআইডির বরাত দিয়ে বাংলাদেশ থেকে মানবপাচার নিয়ে বেশ কয়েকটি প্রতিবেদন প্রকাশ করে কুয়েতি পত্রিকা আল কাবাস ও আরব টাইমস।

About bdlawnews

Check Also

আবরার হত্যা মামলায় বুয়েট শিক্ষকসহ দুজনের সাক্ষ্য

বাংলাদেশ প্রকৌশল বিশ্ববিদ্যালয়ের (বুয়েট) শিক্ষার্থী আবরার ফাহাদ হত্যা মামলায় কম্পিউটার সায়েন্স ইঞ্জিনিয়ারিং (সিএসই) বিভাগের সহকারী …

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

Powered by themekiller.com