Home / আইন আদালত / মৃত্যু পরোয়ানা শোনানো হয়েছে কায়সারকে

মৃত্যু পরোয়ানা শোনানো হয়েছে কায়সারকে

একাত্তরের মানবতাবিরোধী অপরাধের দায়ে মৃত্যুদণ্ডপ্রাপ্ত জাতীয় পার্টির (জাপা) নেতা ও সাবেক কৃষি প্রতিমন্ত্রী সৈয়দ মোহাম্মদ কায়সারকে মৃত্যু পরোয়ানা পড়ে শুনিয়েছে কারা কর্তৃপক্ষ। পরোয়ানা শুনে এর বিরুদ্ধে রিভিউ (পুনর্বিবেচনার আবেদন) চাইবেন বলে জানান কায়সার।

বৃহস্পতিবার বিকালে কেরানীগঞ্জে ঢাকা কেন্দ্রীয় কারাগারে বিকাল সাড়ে ৩টার দিকে তাকে পরোয়ানা পড়ে শোনানো হয়। এর আগে লাল কাপড়ে মোড়ানো মৃত্যু পরোয়ানাটি কারাগারে পৌঁছে। চলতি বছরের ১৪ জানুয়ারি সুপ্রিম কোর্টের আপিল বিভাগ কায়সারের মৃত্যুদণ্ড বহাল রেখে রায় দেয়। পূর্ণাঙ্গ রায় প্রকাশের পর বুধবার বিকালে তা সুপ্রিম কোর্ট থেকে পাঠানো হয় যুদ্ধাপরাধের বিচারে গঠিত আন্তর্জাতিক অপরাধ ট্রাইব্যুনালে।

এরপর ট্রাইব্যুনাল বৃহস্পতিবার সকালে মৃত্যু পরোয়ানা জরি করে। কারাগারের পাশাপাশি আইন মন্ত্রণালয়, স্বরাষ্ট্র মন্ত্রণালয় ও ঢাকার জেলা ম্যাজিস্ট্রেটকে পরোয়ানার অনুলিপি পাঠানো হয় বলে ট্রাইব্যুনালের রেজিস্ট্রার সাঈদ আহমদ জানান।

নিয়ম অনুযায়ী পূর্ণাঙ্গ রায় প্রকাশের ১৫ দিনের মধ্যে ফাঁসির রায় পুনর্বিবেচনার (রিভিউ) আবেদন করতে পারবেন এরশাদের সরকারের সাবেক প্রতিমন্ত্রী সৈয়দ মোহাম্মদ কায়সার। এর মধ্যে তিনি আবেদন না করলে যে কোনো দিন রায় কার্যকর হতে পারে।

এ ব্যাপারে কায়সারের আইনজীবী তানভীর আহমেদ আলামিন জানিয়েছেন, রায়ের প্রত্যায়িত অনুলিপি পেলে তারা রিভিউ আবেদন করবেন।

তিনি বলেছেন, ‘রিভিউ পিটিশন করার জন্য আমার মাক্কেল আমাদের নির্দেশনা দিয়েছেন। রায়ের প্রত্যায়িত অনুলিপি পাওয়ার জন্য দরখাস্ত করা আছে। হয়ত কয়েকদিনের মধ্যেই পেয়ে যাব।’

রিভিউ আবেদন খারিজ হলেও অপরাধ স্বীকার করে রাষ্ট্রপতির কাছে প্রাণভিক্ষা চাইতে পারবেন সৈয়দ কায়সার। তিনি যদি প্রাণভিক্ষা না চান এবং চেয়েও যদি ক্ষমা না পান, তাহলে রায় কার্যকরের ক্ষণগণনা শুরু হবে। রায় কার্যকরের আগে তিনি শেষবারের মতো পরিবারের সঙ্গে সাক্ষাতের সুযোগ পাবেন।

About bdlawnews

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

error: Content is protected !!

Powered by themekiller.com