Home / আইন আদালত / শমী কায়সারের মানহানির মামলার প্রতিবেদন ১০ ডিসেম্বর

শমী কায়সারের মানহানির মামলার প্রতিবেদন ১০ ডিসেম্বর

অভিনেত্রী শমী কায়সারের বিরুদ্ধে ১০০ কোটি টাকার মানহানির মামলার পুনঃতদন্ত প্রতিবেদন দাখিলের তারিখ পিছিয়েছে। আগামী ১০ ডিসেম্বর প্রতিবেদন দাখিলের দিন ধার্য করেছে আদালত।

রোববার মামলাটির তদন্ত প্রতিবেদন দাখিলের জন্য ধার্য ছিল। কিন্তু এদিন মামলার তদন্ত সংস্থা পুলিশ ব্যুরো অব ইনভেস্টিগেশন (পিবিআই) প্রতিবেদন দাখিল করতে পারেনি। এ জন্য ঢাকা মেট্টোপলিটন ম্যাজিস্ট্রেট জিয়াউর রহমান প্রতিবেদন দাখিলের এ তারিখ ধার্য করেন।

অনলাইন নিউজপোর্টাল স্টুডেন্ট জার্নালবিডির সম্পাদক মিঞা মো. নুজহাতুল হাসান গত বছরের ৩০ এপ্রিল মানহানির অভিযোগে মামলাটি করেন।

বাদীর অভিযোগ, গত ২৪ এপ্রিল বিকেলে জাতীয় প্রেসক্লাবের জহুর হোসেন চৌধুরী মিলনায়তনে ই-কমার্সভিত্তিক পর্যটন বিষয়ক সাইট ‘বিন্দু-৩৬৫’ উদ্বোধনের সময় সংবাদকর্মীসহ সরকারি ঊর্ধ্বতন কর্মকর্তা ও গণ্যমান্য ব্যক্তিদের উপস্থিতিতে শমী কায়সার তার দুটি স্মার্টফোন খোয়া গেছে মর্মে অভিযোগ করেন।

সেখানে শমী কায়সার সাংবাদিকদের ‘চোর’ বলে অকথ্য ভাষায় গালিগালাজ করেন। উপস্থিত সাংবাদিকদের আটকে রাখেন এবং তার দেহরক্ষীরা সাংবাদিকদের অকথ্য ভাষায় গালিগালাজ করেন। একপর্যায়ে শমী কায়সার আধা ঘণ্টা গেটে দাঁড়িয়ে থেকে সাংবাদিকদের দেহ তল্লাশি করান।

আদালত মামলাটি শাহবাগ থানা পুলিশকে তদন্তের নির্দেশ দেন। গত ২ অক্টোবর শমী কায়সারের বিরুদ্ধে করা মামলার অভিযোগের বিষয়ে সত্যতা পায়নি মর্মে প্রতিবেদন দাখিল করেন মামলার তদন্ত কর্মকর্তা। ওই প্রতিবেদনে বাদী নারাজি দাখিল করেন। পরে গত ২৫ নভেম্বর আদালত পিবিআইকে মামলাটি ফের তদন্তের নির্দেশ দেন।

About bdlawnews24

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

error: Content is protected !!

Powered by themekiller.com