সদ্য সংবাদ
Home / আইন আদালত / নিবন্ধনধারী ১০৯৭ শিক্ষককে নিয়োগের রায় এনটিআরসি দফতরে

নিবন্ধনধারী ১০৯৭ শিক্ষককে নিয়োগের রায় এনটিআরসি দফতরে

বেসরকারি শিক্ষাপ্রতিষ্ঠানের এক হাজার ৯৭ জন নিবন্ধনধারী শিক্ষককে এমপিওভুক্ত প্রতিষ্ঠানে নিয়োগের সুপারিশ করতে হাইকোর্টের দেয়া নির্দেশনার রায় বেসরকারি শিক্ষক নিবন্ধন ও প্রত্যয়ন কর্তৃপক্ষ (এনটিআরসিএ) দফতরে পাঠানো হয়েছে।

গত ৮ মার্চ দেয়া নির্দেশনায় নিবন্ধনধারীদের নিয়োগের বিষয়ে হাইকোর্টের রায় যথাযথভাবে বাস্তবায়ন করতে বলেছেন আদালত। এতে ১৫ দিনের মধ্যে নিয়োগের সুপারিশ করতে আদেশ দেন আদালত। বুধবার (২৪ মার্চ) এটি প্রকাশ করা হয়েছে।

এ নির্দেশনার ফলে নিয়োগপ্রত্যাশী শিক্ষকদেরকে এমপিওভুক্ত শিক্ষাপ্রতিষ্ঠানে শূন্যপদে নিয়োগের সুপারিশ করতে আর কোনো বাধা নেই। বিষয়টি আজ বৃহস্পতিবার (২৫ মার্চ) নিশ্চিত করেছেন অ্যাডভোকেট মোহাম্মদ ছিদ্দিক উল্লাহ্ মিয়া।

জানা গেছে, নিবন্ধনধারী এই এক হাজার ৯৭ জন শিক্ষক ১ম থেকে ১২তম নিবন্ধন পরীক্ষায় উত্তীর্ণ। তবে সংক্ষুব্ধের সংখ্যা ছিল প্রায় ১৬ হাজার। তাদের মধ্যে বেশ কিছু শিক্ষক আগেই নিয়োগ পেয়েছিলেন। বাকিদের সুপারিশ না করে ঝুলিয়ে রাখায় বঞ্চিতদের পক্ষে এনটিআরসিএ এর বিরুদ্ধে আদালত অবমাননার অভিযোগ আনা হয়।

গত ৮ মার্চ হাইকোর্টের বিচারপতি মামুনন রহমান রহমান ও বিচারপতি খিজির হায়াতের সমন্বয়ে গঠিত বেঞ্চ এ আদেশ দেন। আদেশে ১ম থেকে ১২তম নিবন্ধন পরীক্ষায় উত্তীর্ণ ও নিয়োগপ্রত্যাশীদেরকে ১৫ দিনের মধ্যে শূন্যপদে নিয়োগের সুপারিশ করতে বেসরকারি শিক্ষক নিবন্ধন ও প্রত্যয়ন কর্তৃপক্ষকে নির্দেশ দেন হাইকোর্ট।

একইসঙ্গে আদালত নিবন্ধনধারীদের নিয়োগ সংক্রান্ত হাইকোর্টের রায় বাস্তবায়নও করতে বলেছেন। আদালতে আবেদনের পক্ষে শুনানি করেন অ্যাডভোকেট খুরশিদ আলম খান, অ্যাডভোকেট ছিদ্দিক উল্লাহ্ মিয়া ও ব্যারিস্টার মহিউদ্দিন হানিফ।

ওইদিন আইনজীবীরা জানান, মূলত হাইকোর্টের পূর্বের রায় বাস্তবায়ন না করায় আদালত অবমাননার মামলার শুনানি নিয়ে এসব আদেশ দেয়া হয়।

এর আগে গত বছরের ১৫ ডিসেম্বর এনটিআরসিএ এর শিক্ষাপ্রতিষ্ঠানে শিক্ষক নিয়োগে বিজ্ঞপ্তির ওপর নিষেধাজ্ঞা দেন হাইকোর্ট। এই সময়ে আদালত অবমাননার বিষয় নিষ্পত্তি না হওয়া পর্যন্ত তারা শিক্ষক নিয়োগ বিষয়ে কোনো বিজ্ঞপ্তি দিতে পারবে না বলেও আদেশ দেয়া হয়।

২০১৭ সালের ১৪ ডিসেম্বর হাইকোর্ট একটি রায় দেন। ওই রায়ে কয়েক দফা নির্দেশনা দেয়া হয়। তার মধ্যে সম্মিলিত মেধা তালিকা অনুযায়ী রিট আবেদনকারী এবং অন্যান্য আবেদনকারীদের নামে সনদ জারি করতে নির্দেশ দেয়া হয়। প্রায় ১৬ হাজার নিবন্ধনধারী ওই রিট করেন।

About bdlawnews

Check Also

হাইকোর্টে আনভীরের আগাম জামিন আবেদন

রাজধানীর গুলশানের একটি ফ্ল্যাট থেকে তরুণীর মরদেহ উদ্ধারের ঘটনায় আত্মহত্যায় প্ররোচণার অভিযোগে করা মামলায় হাইকোর্টে …

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

error: Content is protected !!

Powered by themekiller.com