Home / শোক বার্তা / জেয়াদ আল মালুমের মৃত্যুতে গভীর শোক ও দুঃখ প্রকাশ করেছেন প্রধান বিচারপতি এবং আইনমন্ত্রী

জেয়াদ আল মালুমের মৃত্যুতে গভীর শোক ও দুঃখ প্রকাশ করেছেন প্রধান বিচারপতি এবং আইনমন্ত্রী

আন্তর্জাতিক অপরাধ ট্রাইব্যুনালের প্রসিকিউটর বীর মুক্তিযোদ্ধা জেয়াদ আল মালুমের মৃত্যুতে গভীর শোক ও দুঃখ প্রকাশ করেছেন প্রধান বিচারপতি সৈয়দ মাহমুদ হোসেন এবং আইনমন্ত্রী আনিসুল হক।

রোববার (২৭ জুন) দেওয়া এক শোক বার্তায় প্রধান বিচারপতি মরহুমের বিদেহী আত্মার মাগফেরাত কামনা ও শোকসন্তপ্ত পরিবারের প্রতি গভীর সমবেদনা জ্ঞাপন করছেন।

আইনমন্ত্রী তার শোকবার্তায় বলেন, ‘বীর মুক্তিযোদ্ধা জেয়াদ আল মালুম ছিলেন একজন দক্ষ ও অভিজ্ঞ প্রসিকিউটর। তিনি ছিলেন অত্যন্ত কর্তব্যপরায়ণ, সদালাপী ও সাদা মনের মানুষ। ট্রাইব্যুনালে অনেক গুরুত্বপূর্ণ মামলায় রাষ্ট্রপক্ষে বিশেষ ভূমিকা রাখেন তিনি। তার মৃত্যুতে আন্তর্জাতিক অপরাধ ট্রাইব্যুনালে এক বিরাট শূন্যতা তৈরি হলো।

শনিবার (২৬ জুন) দিনগত রাত ১২টার দিকে রাজধানীর সম্মিলিত সামরিক হাসপাতালে (সিএমএইচ) চিকিৎসাধীন অবস্থায় মারা যান জেয়াদ আল মালুম। মৃত্যুকালে তার হয়েছিল ৬৭ বছর।

আজ দুপুর ১ টা ৩০ মিনিটে সুপ্রিম কোর্ট প্রাঙ্গণে মরহুমের জানাজার নামাজ অনুষ্ঠিত হবে বলে জানিয়েছেন সুপ্রিম কোর্ট আইনজীবী সমিতির সম্পাদক রুহুল কুদ্দুস কাজল।

গত ২৫ মে রাতে স্ট্রোক করে অসুস্থ হয়ে পড়লে জেয়াদ আল মালুমকে বাংলাদেশ স্পেশালাইজড হাসপাতালে ভর্তি করা হয়। পরে তাকে ওই হাসপাতালের করোনারি কেয়ার ইউনিটে (সিসিইউ) স্থানান্তর করা হয়। সেখানে চিকিৎসাধীন অবস্থায় তার ফুসফুসে সংক্রমণ ও মারাত্মক জটিলতা ধরা পড়ে। এরপর তার শারীরিক অবস্থার আরও অবনতি হওয়ায় ২৭ মে দুপুরে তাকে লাইফ সাপোর্টে নেওয়া হয়। গত ২ জুন তাকে সিএমএইচে স্থানান্তর করা হয়।

মৃত্যুকালে এ আইনজীবী স্ত্রী অধ্যাপক ডা. সানিয়া তাহমিনা, এক ছেলে ও  এক মেয়েসহ অসংখ্য গুণগাহী রেখে গেছেন।

জেয়াদ আল মালুম ১৯৮৩ সালের ১৩ অক্টোবর আইন পেশার সনদপ্রাপ্ত হয়ে একই বছরের ১৮ ডিসেম্বর ঢাকা আইনজীবী সমিতির সদস্য হন। এরপর ১৯৮৯ সালের ৩০ এপ্রিল সুপ্রিম কোর্টের হাইকোর্ট বিভাগে আইনজীবী হিসেবে অন্তর্ভুক্ত হন।

তার গ্রামের বাড়ি টাঙ্গাইল সদর উপজেলার করটিয়া গ্রামে। তিনি বাংলাদেশের কমিউনিস্ট পার্টির (সিপিবি) কেন্দ্রীয় কমিটির সাবেক সদস্য ও ছাত্রজীবনে ছাত্র ইউনিয়নের নেতা ছিলেন।

২০১০ সালের ২৫ মার্চ আন্তর্জাতিক অপরাধ ট্রাইব্যুনাল গঠিত হলে রাষ্ট্রপক্ষে মামলা পরিচালনার জন্য প্রসিকিউটর হিসেবে নিয়োগ পান জেয়াদ আল মালুম। সেই থেকে তিনি দায়িত্ব পালন করে আসছিলেন।

জেয়াদ আল মালুম মানবতাবিরোধী অপরাধের অভিযোগ এনে জামায়াতে ইসলামীর সাবেক আমীর গোলাম আজম ও মতিউর রহমান নিজামী, সেক্রেটারি জেনারেল আলী আহসান মোহাম্মদ মুজাহিদ, বিএনপি নেতা সালাহউদ্দিন কাদের চৌধুরীসহ বেশ কয়েকজনের বিরুদ্ধে ট্রাইব্যুনালে করা মামলার বিচারে রাষ্ট্রপক্ষে বিশেষ ভূমিকা রাখেন।

About admin

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

error: Content is protected !!

Powered by themekiller.com