Home / জাতীয় / বার কাউন্সিলে বিশেষ পরিস্থিতে ভোট না হলে অ্যাডহক কমিটি অর্ডিন্যান্সের খসড়া অনুমোদন

বার কাউন্সিলে বিশেষ পরিস্থিতে ভোট না হলে অ্যাডহক কমিটি অর্ডিন্যান্সের খসড়া অনুমোদন

মহামারি বা কোনো বিশেষ পরিস্থিতিতে ভোট না হলে অ্যাডহক কমিটি গঠনের সুযোগ রেখে ‘বাংলাদেশ লিগ্যাল প্র্যাকটিশনার্স অ্যান্ড বার কাউন্সিল (অ্যামেন্ডমেন্ট) অর্ডিন্যান্স, ২০২১’-এর খসড়া চূড়ান্ত অনুমোদন দিয়েছে মন্ত্রিসভা।

প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার সভাপতিত্বে সোমবার (২৬ জুলাই) মন্ত্রিসভার ভার্চ্যুয়াল বৈঠকে এ অনুমোদন দেওয়া হয়েছে।

বৈঠক শেষে সচিবালয়ে ব্রিফিংয়ে এ কথা জানান মন্ত্রিপরিষদ সচিব খন্দকার আনোয়ারুল ইসলাম।

তিনি বলেন, ৩১ মে’র মধ্যে বার কাউন্সিলের নির্বাচন করে তিন বছরের জন্য কমিটি নির্বাচিত করতে হয়।

এ সংক্রান্ত অধ্যাদেশে নির্বাচনের কোনো বিকল্প রাখা নেই। সে জন্য অধ্যাদেশটি সংশোধন করে এক বছরের জন্য অ্যাডহক কমিটি করার বিধান যুক্তের প্রস্তাব অনুমোদন দিয়েছে মন্ত্রিসভা।

বৈঠকে ‘বাংলাদেশ লিগ্যাল প্র্যাক্টিশনার্স অ্যান্ড বার কাউন্সিল (অ্যামেন্ডমেন্ট) অর্ডিন্যান্স, ২০২১ এর খসড়ার নীতিগত ও চূড়ান্ত অনুমোদন দেওয়া হয়েছে।

তিনি জানান, ১৯৭২ সালের বার কাউন্সিল অধ্যাদেশে বলা আছে, বার কাউন্সিলে ৩১ মে’র মধ্যে নির্বাচন হতে হবে।

তিন বছরের জন্য কমিটি নির্বাচিত হবে। গত এক-দেড় বছরে যে প্যান্ডেমিক সিচুয়েশন, তাতে ইলেকশন করা সম্ভব হয়নি।

মহামারি বা কোনো বিশেষ পরিস্থিতে ভোট না হলে বিকল্প কী হবে, সেটার কোনো ব্যাখ্যা অধ্যাদেশে ছিল না উল্লেখ করে মন্ত্রিপরিষদ সচিব বলেন, ‌‘সামহাউ ওই অধ্যাদেশের মধ্যে কোনো অল্টারনেটিভ ছিল না। যদি কোনো কারণে ইলেকশন না হয়, রাষ্ট্রীয় কারণে বা আইনশৃঙ্খলার কারণে বা প্রাকৃতিক দুর্যোগে—এসব ক্ষেত্রে কী করণীয় সেটা আগের আইনে ছিল না। ’

‘বার কাউন্সিলের ৩১ মে’র ডেট শেষ হয়ে গেছে। উনারা একটা প্রস্তাব নিয়ে আসছেন। এটা হলো যে, এক বছরের অ্যাডহক কমিটি সরকার করে দিতে পারবে, এরকম একটা বিধান নিয়ে আসছে। ’ কমিটি ১৫ সদস্যের হবে বলেও জানান তিনি।

আরও বলেন, ‘তারা (কমিটি) অল টুগেদার এক বছরের বেশি থাকতে পারবে না। এক বছরের মধ্যে তারা ইলেকশন করে দেবে।

About admin

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

error: Content is protected !!

Powered by themekiller.com