সদ্য সংবাদ
Home / আন্তর্জাতিক / বন্দী প্রত্যর্পণ বিল বাতিল করল হংকং

বন্দী প্রত্যর্পণ বিল বাতিল করল হংকং

বিচারের জন্য চীনের মূলভূখণ্ডে বন্দী প্রেরণের সুযোগ রেখে তৈরি করা বন্দী প্রত্যার্পন বিল আনুষ্ঠানিক ভাবে বাতিল করেছে হংকং সরকার। এর আগে প্রচণ্ড বিক্ষোভের মুখে বিতর্কিত বিলটি স্থগিত করা হয়েছিলো।

বুধবার হংকংয়ের পার্লামেন্টে বিলটি বাতিলের কথা জানানো হয়। এ পদক্ষেপে গণতন্ত্রপন্থি আন্দোলনকারীদের পাঁচ দফা দাবির একটি পূরণ হল।

বিতর্কিত ওই বিলটির বিরোধীতা করে প্রায় পাঁচ মাস ধরে বিক্ষোভ করে আসছে হংকংয়ের লাখো লাখো জনগণ। তবে বিল বাতিলের এই সিদ্ধান্তের পরও শহরটিতে চলমান অস্থিরতার অবসান হবে না বলে ধারণা পর্যবেক্ষকদের।

আন্দোলনকারীদের দাবির মধ্যে আরও আছে- এতদিন ধরে চলে আসা প্রতিবাদ কর্মসূচিকে ‘দাঙ্গা’ হিসেবে অভিহিত না করা, গ্রেপ্তারদের নিঃশর্ত মুক্তি ও ক্ষমা, বিক্ষোভে পুলিশি বর্বরতার নিরপেক্ষ তদন্ত এবং সার্বজনীন ভোটাধিকার নিশ্চিত করা।

চার মাসেরও বেশি সময় ধরে চলা এ আন্দোলনে প্রতিবাদকারীরা চীন-শাসিত নগরীটির অসংখ্য সরকারি ভবন ভাংচুর করেছে ও পুলিশের দিকে পেট্রল বোমা ছুঁড়েছে।

বিবিসি বলছে, বিতর্কিত যে বিলটিকে ঘিরে এ আন্দোলন শুরু হয়েছিল, তাতে চীনের মূলভূখণ্ড, ম্যাকাউ কিংবা তাইওয়ানে কোনো মামলায় অভিযুক্ত হংকংয়ের বাসিন্দাদের সেখানে বহিঃসমর্পণের সুযোগ রাখার প্রস্তাব করা হয়েছিল।

বিলটি আইনে পরিণত হলে, হংকংয়ের বাসিন্দারা চীনের ‘নির্বিচার আটক ও অন্যায় বিচারব্যবস্থার’ জালে আটকা পড়ত বলে শঙ্কা ছিল সমালোচকদের।

তুমুল আন্দোলনের মুখে শহরটির প্রধান নির্বাহী ক্যারি লাম বিলটি স্থগিত করার ঘোষণা দিয়েও বিক্ষোভকারীদের শান্ত করতে পারেননি। ‘পাঁচ দাবি, একটিও কম নয়’ শ্লোগানে বিক্ষোভকারীরা তাদের আকাঙ্ক্ষার কথা বারবারই জানিয়ে এসেছে।

১৯৯৭ সালে যুক্তরাজ্য থেকে হংকং চীনের কাছে পুনরায় হস্তান্তরিত হওয়ার পর এটাই সবচেয়ে বড় আন্দোলন। প্রত্যর্পণ বিল যেন বাস্তবায়ন করা না হয় সে জন্য সরকারের ওপর যথাসাধ্য চাপ প্রয়োগ করতে রাজপথে নামে বিক্ষুব্ধ জনতা। অবশেষে বিক্ষুব্ধ জনতাকে থামাতে বাধ্য হয়েই এই বিল বাতিল করা হলো।

টানা কয়েক মাসের এ বিক্ষোভ মোকাবেলা চীনের কমিউনিস্ট পার্টি নেতৃত্বের জন্যও বিরাট চ্যালেঞ্জ হয়ে দাঁড়িয়েছে।

বেইজিং হংকংয়ের এ বিক্ষোভকে ‘বিপজ্জনক বিচ্ছিন্নতাবাদী’ আন্দোলন হিসেবে দেখছে বলে জানিয়েছে বিবিসি। বিক্ষোভ ও সহিংসতার পেছনে পশ্চিমা দেশগুলোর ইন্ধন আছে বলেও অভিযোগ করেছে তারা।

About bdlawnews24

Check Also

বাহরাইনের প্রধানমন্ত্রীর মৃত্যুতে কাল দেশে একদিনের শোক

বাহরাইনের প্রধানমন্ত্রী শেখ খলিফা বিন সালমান আল খলিফার মৃত্যুতে আগামীকাল মঙ্গলবার একদিনের রাষ্ট্রীয় শোক পালন …

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

Powered by themekiller.com