সদ্য সংবাদ
Home / খেলাধুলা / ফিক্সিং কাণ্ডে গ্রেপ্তার দুই ভারতীয় ক্রিকেটার

ফিক্সিং কাণ্ডে গ্রেপ্তার দুই ভারতীয় ক্রিকেটার

হঠাৎ করেই ভারতের কর্ণাটকের ঘরোয়া ক্রিকেটে ফিক্সিং কাণ্ড নিয়ে টালমাটাল পরিস্থিতি তৈরি হয়েছে। সর্বশেষ স্পট ফিক্সিংয়ের কারণে কর্ণাটক প্রিমিয়ার লিগে (কেপিএল) খেলা দুই ক্রিকেটারকে গ্রেপ্তার করা হয়েছে। সবমিলিয়ে এমন অভিযোগে গ্রেপ্তারের সংখ্যা ৬-এ দাঁড়ালো।

শহরের সেন্ট্রাল ক্রাইম ব্রাঞ্চ কেপিএলে খেলা বেল্লারি তুস্কার্সের অধিনায়ক সিএম গৌতম (কর্ণাটকের সাবেক উইকেটরক্ষক-ব্যাটসম্যান) ও সতীর্থ আবরার কাজীকে ফিক্সিংয়ে জড়িত থাকার অভিযোগে গ্রেপ্তার করেছে। তাদের বিরুদ্ধে কেপিএলের শেষ দুই মৌসুমে ফিক্সিং করার অভিযোগ রয়েছে।

কর্ণাটক পুলিশের অতিরিক্ত কমিশনার সন্দ্বীপ পাতিল এ প্রসঙ্গে বলেন, ‘কেপিএলে ফিক্সিংয়ের কারণে আমরা দুই ক্রিকেটারকে গ্রেপ্তার করেছি।’ ২০১৯ মৌসুম আসরটিতে হুব্বাল্লি বনাম তুস্কার্সের মধ্যকার ফাইনালে ফিক্সিং হয়েছে জানিয়ে পুলিশের তরফ থেকে আরও বলা হয়, ‘ধীর ব্যাটিংয়ের জন্য তাদের ২০ লাখ রুপি (ভারতীয়) দেওয়া হয়েছে। এছাড়া তারা ব্যাঙ্গালুরু বিপক্ষে আরও একটি ম্যাচে ফিক্সিং করেছে।’

এর আগে গত সেপ্টেম্বরে বেলাগাভি প্যান্থারস দলের মালিক আলি আশফাক থারা গ্রেপ্তার হওয়ার পর কেপিএলে স্পট-ফিক্সিং কাণ্ড সামনে আসে। ইতোমধ্যে টুর্নামেন্ট থেকে বহিষ্কার করা হয়েছে বেলাগাভি প্যান্থারসকে। বেল্লারি তুস্কার্স দলের মালিক আরভিন্দ ভেঙ্কটেশ রেড্ডিকেও জিজ্ঞাসাবাদ করা হয়েছে।

গৌতম ও কাজী ভারতের ঘরোয়া ক্রিকেট ও আইপিএলেও খেলেছেন। যেখানে রঞ্জি ট্রফির দল কর্ণাটক থেকে গোয়াতে পাড়ি দিয়েছেন গৌতম ও কাজী বর্তমানে মিজোরামে খেলেন। পুলিশ জানায়, গৌতম আইপিএলের দল রয়্যাল চ্যালেঞ্জার্স ব্যাঙ্গালুরু, মুম্বাই ইন্ডিয়ান্স ও দিল্লি ডেয়ারডেভিলসেও খেলেছেন।

About bdlawnews24

Check Also

সাকিবের নিষেধাজ্ঞার শেষ দিন, যে তিন অভিযোগে নিষিদ্ধ হয়েছিলেন সাকিব

গত বছরের ২৯ অক্টোবর। এ দিনটি ছিল বাংলাদেশের সেরা ক্রিকেটার সাকিব আল হাসানের জন্য বেদনার …

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

Powered by themekiller.com