সদ্য সংবাদ
Home / দেশ জুড়ে / টাঙ্গাইল শহরে ৭২ ঘণ্টা ১৪৪ ধারা
tangail

টাঙ্গাইল শহরে ৭২ ঘণ্টা ১৪৪ ধারা

টাঙ্গাইল-৩ (ঘাটাইল) আসনের সাবেক সংসদ সদস্য আমানুর রহমান খান রানার বড় ভাই আমিনুর রহমান খান বাপ্পীর মৃত্যুবার্ষিকী পালনের কর্মসূচিকে কেন্দ্র করে উত্তপ্ত হয়ে উঠে টাঙ্গাইল। খান পরিবারের কর্মসূচির পাল্টা কর্মসূচি ঘোষণা করেছে তাদের বিরোধী ‘আওয়ামী পরিবার’।

এ ঘটনায় বৃহস্পতিবার ও শুক্রবার আমিনুর রহমান খান বাপ্পী স্মৃতি সংসদ বিভিন্ন ঘোষণা করে। এদিকে একই দিন নির্যাতিত আওয়ামী পরিবার এবং টাঙ্গাইল সিএনজি চালিত অটোরিকশা, অটো-টেম্পো শ্রমিক ইউনিয়নের উদ্যোগে বিভিন্ন কর্মসূচির ঘোষণা করেছে। এর প্রেক্ষিতে জেলার আইনশৃঙ্খলা শান্তিপূর্ণ রাখতে জেলা প্রশাসন আজ বৃহস্পতিবার থেকে শনিবার টাঙ্গাইল শহরে টানা তিন দিন ১৪৪ ধারা জারি করেছে। এই তিনদিন সকাল ৬টা থেকে সন্ধ্যা ৭টা পর্যন্ত শহরের শহীদ মিনার, শহীদ স্মৃতি পৌর উদ্যান, পুরাতন বাসস্ট্যান্ড, ভিক্টোরিয়া রোড, নিরালা মোড়, মেইন রোডসহ গুরুত্বপূর্ণ স্থানগুলোতে সভা, সমাবেশ, মিছিল, মাইকিংসহ সকল কার্যক্রম নিষিদ্ধ করা হয়েছে।

বুধবার (২০ নভেম্বর) রাতে ১৪৪ ধারা জারি করে শহরে মাইকিং করা হয়।

জানা যায়, ২০০৩ সালের ২১ নভেম্বর সন্ত্রাসী হামলায় নিজ বাড়ির কাছেই খুন হন জেলা ছাত্রলীগের সাবেক যুগ্ম-সম্পাদক আমিনুর রহমান খান বাপ্পী। তিনি সাবেক এমপি আমানুর রহমান খান রানার বড় ভাই এবং টাঙ্গাইল-৩ (ঘাটাইল) আসনের বর্তমান এমপি আতাউর রহমান খানের ছেলে।

বাপ্পী হত্যা মামলাটির সাক্ষ্য গ্রহণ এখন শেষ পর্যায়ে। মৃত্যুবার্ষিকী উপলক্ষে এবার ‘শহীদ আমিনুর রহমান খান বাপ্পী স্মৃতি সংসদের’ ব্যানারে খান পরিবার বিভিন্ন কর্মসূচি হাতে নেয়। কর্মসূচির মধ্যে রয়েছে বৃহস্পতিবার কবর জিয়ারত, বাপ্পী স্মৃতিস্তম্ভে পুষ্পস্তবক অর্পণ ও শোক র‌্যালি এবং পরদিন শুক্রবার বিকেলে স্থানীয় শহীদ মিনারে আলোচনা সভা।

কিন্তু আওয়ামী লীগের খান পরিবার বিরোধী নেতাদের দাবি, বাপ্পীর মৃত্যুবার্ষিকীর এ কর্মসূচির মধ্য দিয়ে খান পরিবার তাদের অনুসারী সন্ত্রাসীদের আবার একত্রিত করছে। এরা টাঙ্গাইলকে সন্ত্রাসী কর্মকাণ্ডের মাধ্যমে আবার অস্থিতিশীল করে তুলতে চাইছে। তাদের এই সন্ত্রাসী কর্মকাণ্ডের নীলনকশা রুখতেই পাল্টা কর্মসূচি হাতে নেয়া হয়েছে। কর্মসূচির মধ্যে রয়েছে বৃহস্পতিবার সকালে ‘নির্যাতিত আওয়ামী পরিবারের’ ব্যানারে সকালে আওয়ামী লীগ নেতা ফারুক আহমেদ বিচারের দাবিতে শহরের বিক্ষোভ মিছিল ও শহীদ মিনারে সমাবেশ। পরদিন শুক্রবার বিকেলে বিক্ষোভ মিছিল শেষে শহীদ মিনারে সিএনজি চালিত অটোরিকশা, অটোটেম্পো শ্রমিক ইউনিয়নের উদ্যোগে নতুন সড়ক পরিবহন আইন বাস্তবায়নে প্রধানমন্ত্রীকে কৃতজ্ঞতা জানিয়ে সমাবেশ। এছাড়া শনিবারও বিক্ষোভ মিছিল ও সমাবেশ রয়েছে তাদের।

আমানুর রহমান খান রানার অংশের নেতা টাঙ্গাইল সদর উপজেলা পরিষদের সাবেক ভাইস চেয়ারম্যান ও জেলা শ্রমিক লীগের সহ-সভাপতি আব্বাস আলী বলেন, কর্মসূচি শান্তিপূর্ণভাবে সফল করতে সকল প্রস্তুতি নেয়া হয়েছে। শুক্রবারের আলোচনা সভায় বেশ কয়েকজন এমপি উপস্থিত থাকবেন বলে তিনি জানান।

খান পরিবার বিরোধী অংশের নেতা জেলা আওয়ামী লীগের সাংগঠনিক ও প্যানেল মেয়র সাইফুজ্জামান সোহেল বলেন, বাপ্পীর মৃত্যুবার্ষিকী পালনের নামে খান পরিবার আবার তাদের সন্ত্রাসীদের নিয়ে অপতৎপরতা শুরু করেছে। তাদের এই অশুভ কর্মকাণ্ড প্রতিহত এবং মুক্তিযোদ্ধা ফারুক আহমেদ হত্যার বিচারের দাবিতে তারা কর্মসূচি নিয়েছেন।

এ ব্যাপারে টাঙ্গাইলের পুলিশ সুপার সঞ্জিত কুমার রায় বলেন, শহরের শান্তি শৃঙ্খলা বজায় রাখার স্বার্থে কোনও পক্ষকেই মিছিল সমাবেশের অনুমতি না দেয়ার জন্য পুলিশ বিভাগের পক্ষ থেকে জেলা প্রশাসনকে মতামত দেয়া হয়েছে।

এ প্রসঙ্গে টাঙ্গাইলের অতিরিক্ত জেলা প্রশাসক (সার্বিক) মোশারফ হোসেন খান বলেন, একই দিনগুলোতে দুপক্ষের পাল্টাপাল্টি কর্মসূচির কারণে আইনশৃঙ্খলার অবনতির ঘটতে পারে। তাই বিষয়টি চিন্তা করে শহরের শহীদ স্মৃতি পৌর উদ্যান, শহীদ মিনার, নিরালার মোড়, পুরাতন বাসস্ট্যান্ড ও বিভিন্ন শহরের প্রধান প্রধান সড়কের গুরুত্বপূর্ণ স্থান এবং এর আশপাশের এলাকায় টানা ৩ দিন ১৪৪ ধারা জারি করা হয়েছে। এই তিনদিন সকাল ৬টা থেকে সন্ধ্যা ৭টা পর্যন্ত এই আদেশ পালিত হবে।

টাঙ্গাইল অতিরিক্ত পুলিশ সুপার আহাদুজ্জামান মিয়া বলেন, আইনশৃঙ্খলা শান্তিপূর্ণ রাখতে জেলা প্রশাসন শহরের গুরুত্বপূর্ণ স্থানগুলোতে ১৪৪ ধারা জারি করেছে। এ কারণে সেইসব স্থানগুলোতে অতিরিক্ত পুলিশ মোতায়েন করা হয়েছে।

 

About bdlawnews24

Check Also

করোনায় আরো ২৮ জনের মৃত্যু, শনাক্ত ১০১৪

করোনাভাইরাসে দেশে ২৪ ঘণ্টায় আরো ২৮ জনের মৃত্যু হয়েছে। এ নিয়ে মোট মৃতের সংখ্যা বেড়ে …

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

Powered by themekiller.com