সদ্য সংবাদ
Home / রাজনীতি / ২১ আগস্ট হামলার মাস্টারমাইন্ডদের সর্বোচ্চ শাস্তি হওয়া উচিত: কাদের

২১ আগস্ট হামলার মাস্টারমাইন্ডদের সর্বোচ্চ শাস্তি হওয়া উচিত: কাদের

শনিবার (২৪ আগস্ট) ২১ আগস্ট গ্রেনেড হামলায় নিহত আইভী রহমানের ১৫তম মৃত্যুবার্ষিকীতে রাজধানীর বনানী কবরস্থানে দলের পক্ষ থেকে শ্রদ্ধা নিবেদন করে তিনি এসব কথা বলেন।

মাস্টারমাইন্ডদের বিচারে কোন রাজনৈতিক বাঁধা আছে কি-না জানতে চাইলে ওবায়দুল কাদের বলেন, ‘রাজনৈতিক বাধা অতিক্রম করতে হবে। চ্যালেঞ্জ অতিক্রম করেই এগিয়ে যেতে হবে। আইনের শাসনের জন্যই তাদেরকে বিচারের মুখোমুখি করা দরকার।’

প্রথমে আওয়ামী লীগ সভাপতি প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার পক্ষে দলের সাধারণ সম্পাদক ওবায়দুল কাদেরের নেতৃত্বে ফুল দিয়ে শ্রদ্ধা জানানো হয়। পরে বিভিন্ন রাজনৈতিক দলের নেতৃবৃন্দ শ্রদ্ধা জানান।

সেখানে উপস্থিত ছিলেন- আওয়ামী লীগের যুগ্ম-সাধারণ সম্পাদক মাহবুব উল আলম হানিফ, যুগ্ম-সাধারণ সম্পাদক জাহাঙ্গীর কবির নানক, আওয়ামী লীগের উপদেষ্টা মণ্ডলীর সদস্য ইনাম আহমেদ চৌধুরী, শিল্পমন্ত্রী নূরুল মজিদ মাহমুদ মাহমুদ হুমায়ুন এমপি, নৌ-পরিবহন প্রতিমন্ত্রী খালিদ মাহমুদ চৌধুরী এমপি, ধর্ম প্রতিমন্ত্রী শেখ মো. আব্দুল্লাহ ও স্থানীয় সংসদ সদস্য আকবর হোসেন পাঠানসহ আওয়ামী লীগের কেন্দ্রীয় ও ঢাকা মহানগরের নেতারা।

প্রতিবারের মতো এবারও বাদ আসর পরিবারের পক্ষ থেকে আইভি কনকর্ড টাওয়ারে (বাড়ি-২২, সড়ক-১০৮, গুলশান-২, ঢাকা) মিলাদ ও দোয়া মাহফিল আয়োজন করা হয়েছে।
এছাড়া দিনটি উপলক্ষে ভৈরব উপজেলা ও শহর আওয়ামী লীগ নানান কর্মসূচির আয়োজন করেছে।

২০০৪ সালের ২১ আগস্ট রাজধানীর বঙ্গবন্ধু এভিনিউয়ে আওয়ামী লীগ আয়োজিত সন্ত্রাসবিরোধী সমাবেশে গ্রেনেড হামলায় আহত হয়ে ৪ দিন মৃত্যুর সঙ্গে লড়াই করে ২৪ আগস্ট মারা যান আইভি রহমান।

আইভি রহমান ১৯৪৪ সালের ৭ জুলাই কিশোরগঞ্জ জেলার ভৈরব শহরের চন্ডিবে সম্ভ্রান্ত পরিবারে জন্মগ্রহণ করেন। তার পুরো নাম জেবুন্নেছা আইভি।

১৯৫৮ সালের ২৭ জুন নবম শ্রেণিতে অধ্যয়নকালে ভৈরবের কৃতীসন্তান জিল্লুর রহমানের ( প্রয়াত রাষ্ট্রপতি) সঙ্গে তার বিয়ে হয়।

এরপর তার নামের সঙ্গে রহমান যুক্ত করে তিনি আইভি রহমান নামে পরিচিতি পান। তার বাবা জালাল উদ্দিন আহমেদ ছিলেন ঢাকা কলেজের অধ্যক্ষ। মা হাসিনা বেগম ছিলেন গৃহিণী।

৮ বোন ৪ ভাইয়ের মধ্য তিনি ছিলেন ৫ম। ১৯৭১ সালে তিনি মুক্তিযুদ্ধে অংশগ্রহণ করেন।

১৯৭৫ সালে আইভি রহমান মহিলা আওয়ামী লীগের সদস্য এবং ১৯৮০ সালে তিনি কেন্দ্রীয় মহিলা আওয়ামী লীগের সভাপতি হন। এরপর তিনি দীর্ঘদিন এ দায়িত্ব পালন করেন।

রাজনৈতিক সম্পর্ক ছাড়াও আইভি রহমান জাতির জনক বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের আত্মীয়। তার বিয়ের সাক্ষী ছিলেন বঙ্গবন্ধু।

About bdlawnews24

Check Also

স্বাধীনতাবিরোধীরাই বঙ্গবন্ধুর ভাস্কর্যের বিরোধিতা করছে : খাদ্যমন্ত্রী

খাদ্যমন্ত্রী সাধন চন্দ্র মজুমদার বলেছেন, স্বাধীনতাবিরোধী চক্রই বঙ্গবন্ধুর ভাস্কর্য নির্মাণের বিরোধিতা করছে। তিনি বলেন, যারা …

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

Powered by themekiller.com