সদ্য সংবাদ
Home / দেশ জুড়ে / ডেঙ্গু আক্রান্তের সংখ্যা কমছে

ডেঙ্গু আক্রান্তের সংখ্যা কমছে

এক সপ্তাহের ব্যবধানে সারাদেশে ডেঙ্গু আক্রান্তের সংখ্যা কমেছে ৩২৭। যদিও এ কমার হার ধারাবাহিক নয়। একেক দিন তা ওঠানামা করছে। স্বাস্থ্য অধিদপ্তরের হেলথ ইমার্জেন্সি অপারেশন সেন্টার ও কন্ট্রোলরুম জানিয়েছে, গত ২১ আগস্ট সারাদেশে ডেঙ্গু আক্রান্তের সংখ্যা ছিল ১ হাজার ৬২৬। এক সপ্তাহ পর গতকাল এ সংখ্যা কমে দাঁড়িয়েছে ১ হাজার ২৯৯-এ। গতকাল মঙ্গলবার ডেঙ্গু পরিস্থিতি নিয়ে স্বাস্থ্য অধিদপ্তরে আয়োজিত এক ব্রিফিংয়ে অধিদপ্তরের রোগ নিয়ন্ত্রণ শাখার পরিচালক অধ্যাপক ডা. সানিয়া তহমিনা এ তথ্য জানান।

এদিকে ডেঙ্গু জ্বরে আক্রান্ত হয়ে গতকাল সকাল ৮টা পর্যন্ত ২৪ ঘণ্টায় সারাদেশে বিভিন্ন হাসপাতালে ১ হাজার ২৯৯ জন ভর্তি হয়েছে। তার মধ্যে রাজধানীতে ৬০৮ জন এবং ঢাকার বাইরে নতুন ভর্তি রোগীর সংখ্যা ৬৯১। এ হিসাবে ঢাকার বাইরে ডেঙ্গু আক্রান্ত হয়ে ভর্তি রোগীর সংখ্যা ৮৩। ডেঙ্গুতে গতকাল মারা গেছে আরো চার জন।

গত ৮ মাসে ১০৭ জন চিকিৎসক, ১৩৭ জন নার্স ও ৯১ জন স্বাস্থ্যকর্মী ডেঙ্গুতে আক্রান্ত হয়েছেন। তাদের মধ্যে তিন জন চিকিৎসক, এক জন মেডিক্যাল শিক্ষার্থী, এক জন স্বাস্থ্যকর্মীসহ পাঁচ জনের মৃত্যু হয়েছে। চলতি বছরের ১ জানুয়ারি থেকে ২৬ আগস্ট পর্যন্ত তারা ডেঙ্গুতে আক্রান্ত হন। বর্তমানে দুই জন চিকিত্সক, সাত জন নার্স, এক জন স্বাস্থ্যকর্মীসহ ১০ জন হাসপাতালে চিকিত্সাধীন বলে জানিয়েছে স্বাস্থ্য অধিদপ্তরের হেলথ ইমার্জেন্সি অপারেশনস অ্যান্ড কন্ট্রোলরুম। ঢাকা মেডিক্যাল কলেজ হাসপাতালের ২৫ জন চিকিত্সক, শহীদ সোহরাওয়ার্দী মেডিক্যাল কলেজ হাসপাতালে ১১ জন চিকিত্সক এবং মুগদা মেডিক্যাল কলেজ হাসপাতালে ১৪ জন চিকিত্সক ডেঙ্গুতে আক্রান্ত হয়েছেন।

ডেঙ্গু জ্বরে আক্রান্ত হয়ে গতকাল সকাল ১০টার দিকে ঝিনাইদহের কালীগঞ্জ উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে ৫৫ বছর বয়সি এক নারী, প্রায় একই সময়ে ঢাকা মেডিক্যাল কলেজ হাসপাতালে এক কিশোর, আর সোমবার মধ্যরাতে রংপুর মেডিক্যাল কলেজ হাসপাতালে এক তরুণ মারা গেছেন। গাজীপুর সিটি করপোরেশনের সামন্তপুর এলাকার ডেঙ্গুতে আক্রান্ত এক স্কুলছাত্র ঢাকা মেডিক্যাল কলেজ হাসপাতালে চিকিত্সাধীন অবস্থায় মারা গেছে। গতকাল সকালে জিসান নামে এই স্কুলছাত্রের মৃত্যু হয়। সে স্থানীয় ছোট দেওরা অগ্রণী উচ্চবিদ্যালয়ের নবম শ্রেণির ছাত্র ছিল। গতকাল সকাল পৌনে ১০টায় ঝিনাইদহের কালীগঞ্জ উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে সুফিয়া বেগম (৫৫) নামে এক নারী ডেঙ্গুতে মারা যান। সুফিয়া উপজেলার বানুড়িয়া গ্রামের আব্দুর রহিমের স্ত্রী। সোমবার সকালে জ্বর ও মাথাব্যথা নিয়ে তিনি ঐ হাসপাতালে ভর্তি হন। পরীক্ষায় সুফিয়ার ডেঙ্গু ধরা পড়ে। তার রক্তের প্লাটিলেট ছিল ১ লাখ ৮০ হাজার। পিসিভি ৩৬ এবং এনএস-১ পজেটিভ। গতকাল সকালে বাথরুমে গিয়ে তিনি হঠাত্ বেশি অসুস্থ হয়ে পড়েন। এরপর তাকে পরিবারের লোকজন হাসপাতালের নিয়ে গেলে সেখানেই তিনি মারা যান। ডেঙ্গু নিয়ে রংপুর মেডিক্যাল কলেজ হাসপাতালে ভর্তি এক যুবক চিকিত্সাধীন অবস্থায় মারা গেছেন। সোমবার রাতে মাহতাব (২৪) নামে ঐ যুবকের মৃত্যু হয়। ডেঙ্গু জ্বর নিয়ে গত ১৮ অগাস্ট রংপুর হাসপাতালে ভর্তি হন মাহতাব। এর আগে তিনি দিনাজপুরের এম আব্দুর রহিম মেডিক্যাল কলেজ হাসপাতালে ভর্তি ছিলেন। মাহতাবের শারীরিক অবস্থা আশঙ্কাজনক থাকায় হাসপাতালে ভর্তির এক দিন পর তাকে আইসিইউতে নেওয়া হয়। সেখানে চিকিত্সাধীন থাকার পর শারীরিক অবস্থার উন্নতি হলে সোমবার সকালে তাকে সংশ্লিষ্ট ওয়ার্ডে নিয়ে যাওয়া হয়। সারাদিন ভালো থাকলেও রাত ১টায় হঠাত্ করে তার খিঁচুনি ও শ্বাসকষ্ট শুরু হয়। প্রয়োজনীয় চিকিত্সা দিয়েও তাকে বাঁচানো যায়নি। পিরোজপুরের নাজিরপুর উপজেলায় গতকাল ডেঙ্গু জ্বরে আক্রান্ত হয়ে মাহামুদা বেগম (৩৫) নামের এক গৃহবধূর মৃত্যু হয়েছে। চার সন্তানের জননী মাহামুদা বেগম নাজিরপুর উপজেলার মধ্য কলারদোয়ানিয়া গ্রামের আমির হোসেনের স্ত্রী। নিহতের মামা আবু সালেক জানান, মাহামুদা গত শুক্রবার ডেঙ্গু জ্বরে আক্রান্ত হয়ে গোপালগঞ্জ মেডিক্যাল কলেজ হাসপাতালে ভর্তি হন। সেখানে চিকিত্সাধীন অবস্থায় গতকাল ভোরে তার মৃত্যু হয়।

স্বাস্থ্য অধিদপ্তরের হেলথ ইমার্জেন্সি অপারেশন সেন্টার অ্যান্ড কন্ট্রোল রুম জানিয়েছে, বর্তমানে দেশের বিভিন্ন সরকারি ও বেসরকারি হাসপাতালে সর্বমোট ভর্তি রোগীর সংখ্যা ৫ হাজার ৩২২। তাদের মধ্যে ঢাকার ৪১টি সরকারি, বেসরকারি ও স্বায়ত্তশাসিত হাসপাতালে ২ হাজার ৯৯৯ জন এবং অন্যান্য বিভাগে ভর্তি রোগীর সংখ্যা ২ হাজার ৩২৩। চলতি বছরের ১ জানুয়ারি থেকে গতকাল পর্যন্ত ৬৬ হাজার ৬৪ জন সারা দেশের হাসপাতালে ভর্তি হয়। তাদের মধ্যে চিকিত্সা গ্রহণ শেষে বাড়ি ফিরেছে ৬০ হাজার ৫৬৯ জন।

ঢাকা উত্তর সিটি করপোরেশনের (ডিএনসিসি) এডিস মশার লার্ভাবিরোধী ভ্রাম্যমাণ আদালতকে স্বাস্থ্য ও পরিবারকল্যাণমন্ত্রী জাহিদ মালেকের বাড়িতে প্রবেশ করতে দেওয়া হয়নি। গতকাল মঙ্গলবার রাজধানীর বারিধারার পার্ক রোডে স্বাস্থ্যমন্ত্রীর বাড়িতে গেলে ডিএনসিসির ভ্রাম্যমাণ আদালত বাধার মুখে পড়েন। তখন মন্ত্রী বাসায় ছিলেন না।

About bdlawnews24

Check Also

মেডিকেল ভর্তি পরীক্ষা স্বচ্ছ ও সুষ্ঠুভাবে সম্পন্ন করতে ‌ডিএম‌পির নির্দেশনা

 করোনা পরিস্থিতিতে সরকারি নির্দেশনা অনুযায়ী গণপরিবহনে অর্ধেক যাত্রী বহন করায় পরিবহন সঙ্কট দেখা দিতে পারে। …

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

error: Content is protected !!

Powered by themekiller.com