Home / জেলা আদালত / কুষ্টিয়ায় কলেজছাত্র হত্যায় চারজনের যাবজ্জীবন

কুষ্টিয়ায় কলেজছাত্র হত্যায় চারজনের যাবজ্জীবন

কুষ্টিয়া মডেল থানায় করা কলেজছাত্র হত্যা মামলায় চারজনের যাবজ্জীবন কারাদণ্ড ও প্রত্যেকের ৫০ হাজার টাকা জরিমানা আদেশ দিয়েছেন আদালত। এ মামলার দুজনকে খালাস দেন আদালত। রবিবার বেলা সাড়ে ১১টায় কুষ্টিয়া নারী ও শিশু নির্যাতন দমন বিশেষ আদালতের বিচারক মুন্সী মশিয়ার রহমান জনাকীর্ণ আদালতে আসামিদের উপস্থিতিতে এই রায় ঘোষণা করেন।

দণ্ডপ্রাপ্তরা হলেন- সদর উপজেলার চৌড়হাস আদর্শপাড়া গ্রামের রাকিবুল ইসলাম রাকিব, এরশাদ নগর আশ্রায়ন প্রকল্পের বাসিন্দা সুজন, পূর্ব মজমপুর গ্রামের নাইম রাব্বি এবং চৌড়হাস ফুলতালা গ্রামের পিয়াস।

আদালত সূত্রে জানা গেছে, ২০১৬ সালের ১৮ সেপ্টেম্বর বিকাল সাড়ে ৪টায় কুষ্টিয়া সরকারি কলেজের দ্বাদশ বিজ্ঞান বিভাগের ছাত্র পলাশের ওপর হামলার ঘটনা ঘটে। ওই দিন পলাশ মটরসাইকেলযোগে পিটিআই সড়ক দিয়ে যাওয়ার সময় পূর্বশত্রুতার জের ধরে আসামিরা পথরোধ করে। এক পর্যায়ে ধারালো অস্ত্রের আঘাতে তাকে জখম করে। গুরুতর আহত পলাশকে উদ্ধার করে কুষ্টিয়া জেনারেল হাসপাতালে ভর্তি করে স্থানীয়রা। চিকিৎসাধীন অবস্থায় পরদিন তার মৃত্যু হয়।

এ ঘটনায় নিহত পলাশের মা সেলিনা বেগম ছয় আসামির নামে কুষ্টিয়া মডেল থানায় হত্যা মামলা করেন। মামলাটি তদন্ত শেষে ২০১৭ সালের ৬ জুন আদালতে চার্জশিট দেয় পুলিশ। হত্যার ঘটনাটিকে পূর্বশত্রুতার জের ধরে পরিকল্পিত হত্যাকাণ্ড হিসেবে উল্লেখ করা হয়।

কুষ্টিয়া নারী ও শিশু নির্যাতন দমন বিশেষ আদালতের রাষ্ট্রপক্ষের আইনজীবী আব্দুল হালিম সত্যতা নিশ্চিত করেন। বলেন, কুষ্টিয়া মডেল থানার মেধাবী কলেজছাত্র পলাশ হত্যা মামলাটিতে আসামিদের বিরুদ্ধে আনীত অভিযোগে চার্জ গঠন করা হয়। দীর্ঘ সাক্ষ্য শুনানি শেষে চার আসামির বিরুদ্ধে হত্যায় জড়িত অভিযোগ প্রমাণিত হওয়ায় এবং বয়স বিবেচনায় সর্বোচ্চ সাজা মৃত্যুদণ্ডের পরিবর্তে যাবজ্জীবন কারাদণ্ড ও প্রত্যেকের ৫০ হাজার টাকা জরিমানা, অনাদায়ে আরও এক বছর সাজার আদেশ দিয়েছে আদালত। অভিযোগ প্রমাণিত না হওয়ায় রনি ও ফয়সালকে খালাস দিয়েছে আদালত।

About bdlawnews

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

error: Content is protected !!

Powered by themekiller.com